‘আমি সারাজীবনই মুসলমান ছিলাম, তবে বুঝতে পারি নি’

জনপ্রিয় আইরিশ সংগীত শিল্পী সিনেড ও’কনর বলেছেন, ‘আমি সারাজীবন ধরেই একজন মুসলমান ছিলাম, তবে আগে কখনও উপলব্ধি করতে পারি নি।’ শুক্রবার রাতে একটি আইরিশ টিভি চ্যানেলে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এই কথা বলেন। প্রায় একবছর আগে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন ও’কনর। সাক্ষাৎকারে তিনি প্রথমবার পবিত্র কুরআন শরীফ পড়ার অনুভূতি পরবর্তীতে মুসলমান হওয়ার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন।

লেট লেট শো নামের এক অনুষ্ঠানে দেয়া সাক্ষাৎকারে ও’কনর বলেন, ‘আপনি যদি পবিত্র কোরআন পড়েন তাহলে বুঝতে পারবেন যে, আপনি সারা জীবনই মুসলমান ছিলেন কিন্তু এটি কখনো উপলব্ধি করতে পারেন নি। আমার সাথেও এমনটি ঘটেছে।’ তিনি বলেন, ‘আমার বয়স ৫২ বছর। আমি যে আয়ারল্যান্ডে বেড়ে উঠেছি তা এখনকার তুলনায় আলাদা ছিল। ধর্মীয়ভাবে বলতে গেলে তখন এটি একটি বাজে দেশ ছিল। সবাই ছিল হতভাগ্য, কারণ কেউ ইশ্বরের বিশ্বাসে শান্তি পাচ্ছিল না।’

আইরিশদের জীবন নিয়ে গান গেয়ে দীর্ঘ সময় শ্রোতাদের মুগ্ধ করে রাখা এই গায়িকা জানান, তিনি ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ পড়েছেন এবং পরে ইশ্বর সম্পর্কে জানতে আরো সত্যের সন্ধান করেছেন। ইসলাম গ্রহণ করতে তিনি এতো দেরি করেছেন কারণ, এই ধর্ম সম্পর্কে তার মনে কিছু কুসংস্কার ছিল।

অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক রায়ান টুব্রিডি এই গায়িকার কাছে জানতে চেয়েছিলেন, তিনি ৫২ বছর বয়সে তিনি জীবন উপভোগ করছেন কিনা। উত্তরে ও’কনর জানান, তিনি এখন ১৭ বছরের বয়সের মতো অনুভব করছেন। তিনি বলেন, ‘আমার বার্ধক্যের অভিজ্ঞতা হল, আমার শরীরের বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমার মনের বয়স আরো কম হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সালে ‘নাথিং কমপেয়্যার টু ইউ’ গানটির মাধ্যমে তিনি বিশ্বজোড়া খ্যাতি অর্জন করেন। তার অসংখ্য গানের অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে এবং আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিল্পীদের মধ্যে নিজের অবস্থান ধরে রেখেছেন। চলতি মাসের শেষ দিকে কো টিপ্পেরিতে ফেইল’১৯ শোতে পারফর্ম করতে চলেছেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close