টাওয়ার হ্যামলেটসের ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থী তাদের শীর্ষ তিন পছন্দের স্কুলে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে

টাওয়ার হ্যামলেটসের বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী তাদের পছন্দের প্রাইমারী স্কুলে এ বছর ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। বারার ৯৬.৫ শতাংশ শিশু তাদের পছন্দের প্রাইমারী স্কুলে ২০১৯ সালের শিক্ষাবর্ষ শুরু করবে। পক্ষান্তরে লন্ডনের গড় হার হচ্ছে ৯৬.১ শতাংশ।
সেকেন্ডারি স্কুলে ভর্তির ক্ষেত্রেও টাওয়ার হ্যামলেটসের শতকরা হার হচ্ছে ৯১.২, যা লন্ডনের গড়ের তুলনায় ৩.৯ শতাংশ বেশি। লন্ডনের গড় হচ্ছে ৮৭.৩ শতাংশ।
গত ২৭ ফেব্রয়ারী অনুষ্ঠিত কেবিনেট মিটিংয়ে ২০২০/২১ শিক্ষাবর্ষের স্কুল ভর্তি ব্যবস্থা সংক্রান্ত নতুন পদ্ধতি অনুমোদনকালে মেয়র এই উপাত্ত তুলে ধরেন।
২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ এর মধ্যে কাউন্সিলকে বারার স্কুলগুলোর ভর্তি ব্যবস্থা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহন করার এবং ১৫ মার্চের মধ্যে তা ওয়েবসাইটে প্রকাশের বাধ্যবাধকতা ছিলো।
এছাড়া কাউন্সিলকে অবশ্যই প্রতিটি বয়স গ্রুপের জন্য ভর্তির সংখ্যা নির্ধারণ করতে হবে। কমিউনিটি অথবা স্বেচ্ছাসেবী নিয়ন্ত্রিত স্কুলগুলোর ক্ষেত্রে, কাউন্সিলকে সেগুলোর গভর্নিং কর্তৃপক্ষের সাথে এই মর্মে আলোচনা করতে হবে যে, তারা আসন সংখ্যা বাড়াতে অথবা যা আছে তা বজায় রাখতে চায় কিনা।
পাবলিশড এডমিশন নাম্বার, যা সংক্ষেপে প্যান হিসেবে পরিচিত, তাতে সর্বোচ্চচ সংখ্যক আসন নির্ধারণ করা থাকে, যে অনুযায়ি প্রতিটি স্কুল ২০২০/২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য রিসেপশন ইয়ার (প্রাইমারী), ইয়ার ৭ (সেকেন্ডারি অথবা ইয়ার ৯ এ শিক্ষার্থী ভর্তি করবে।

বারার অধিকাংশ স্কুলে এই প্যান এ কোন পরিবর্তন আনা হয়নি। তবে কাউন্সিল তার তিনটি কমিউনিটি স্কুলে ভর্তি সংখ্যা কমিয়ে আনতে সম্মত হয়েছে। এলিজাবেথ সেলবি ইনফ্যান্টস এবং লোডেল জুনিয়রস স্কুলে আসন সংখ্যা ৭৫ থেকে ৬০ এ কমিয়ে আনা হচ্ছে। বো সেকেন্ডারি স্কুলও তাদের আসন সংখ্যা ২৭০ থেকে ২৪০ এ নামিয়ে আনবে। গত ৫ বছরে ভর্তির ক্ষেত্রে এই বো স্কুলের জন্য নির্ধারিত আসন সংখ্যার পুরোটা কখনো পূর্ণ না হওয়ায় আসন সংখ্যা হ্রাস করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিলো। এলিজাবেথ সেলবি ইনফ্যান্টস এবং লোডেল জুনিয়র স্কুলের ক্ষেত্রে টিচিং ও আউটডোর স্পেস এর স্বল্পতা ও প্রাইমারী স্কুলের আসনের চাহিদা হ্রাস পাওয়ায় আসন সংখ্যা কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
২০১৮ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৪ জানুয়ারী পর্যন্ত বাসিন্দাদের সাথে এ ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে। প্রশ্নের উত্তরে ৩৫ জনের মধ্যে ৩১ জনই (৮৯%) এলিজাবেথ সেলবি ও লোডেল স্কুলের আসন সংখ্যা হ্রাস করার পক্ষে এবং ৩২ জন (৯০%) বো স্কুলের আসন হ্রাসের প্রস্তাবকে সমর্থন করেন।
টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস বলেন, আবারও বারার বিপুল সংখ্যক শিশু তাদের শীর্ষ তিন পছন্দের স্কুলের একটিতে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় আমি খুবই সন্তুষ্ঠ। এসব স্কুলের সিংহভাগই হচ্চেছ ভালো অথবা শ্রেষ্ট। অভিভাবকদের পূর্ণ সমর্থনে স্কুল এডমিশন পলিসিতেও উপযুক্ত পরিবর্তন আনা হয়েছে।
কেবিনেট মেম্বার ফর স্কুলস, কাউন্সিলর ড্যানি হ্যাসেল বলেন, উন্নত মানসম্মত স্কুলে নিজের বাচ্চার আসন নিশ্চিত করাটা আমাদের বারার অভিভাবকদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে আমাদের অগ্রগতির ধারা অব্যাহত থাকায় আমি খুবই সন্তুষ্ঠ।
বারার স্কুল, নার্সারী ও ও চিলড্রেন্স সেন্টারগুলোতে ভর্তির আবেদনপত্র পাওয়া যাচ্ছে। আবেদন করার শেষ সময় হচ্ছে ২০২০ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারী। এই সময়ের মধ্যে যারা আবেদন করবেন, তাদেরকে আবেদনের অবস্থা সম্পর্কে অবহিত করা হবে ৭ মে ২০২০।
কিভাবে আবেদন করতে হবে, তার যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে স্কুলে ভর্তি সংক্রান্ত বুকলেট “স্টার্টিং নার্সারি ইন টাওয়ার হ্যামলেটস” এ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close