আইডিয়া স্টোর পরিদর্শন করলেন মেয়র জন বিগস

টাওয়ার হ্যামলেটসের সদ্য পাশ হওয়া বাজেটে বারার আইডিয়া স্টোর ও লাইব্রেরী সমূহে প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ নিশ্চিত করার প্রেক্ষিতে নির্বাহী মেয়র জন বিগস গত সপ্তাহে হোয়াইটচ্যাপল আইডিয়া স্টোর পরিদর্শন করেন।
২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত কাউন্সিলের বাজেট থেকে ১৩৮ মিলিয়ন পাউন্ড কর্তক নরা হয়েছে। কাউন্সিলকে অব্যাহত আর্থিক কর্তন ও ক্রমবর্ধমান চাহিদা মোকাবেলা করতে ২০১৭-১৮ এবং ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট থেকে ৫৮ মিলিয়ন পাউন্ড সাশ্রয় করতে হবে। যেখানে দেশের কিছু কিছু বারায় লাইব্রেরী সার্ভিসগুলো বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে, সেখানে সাবধানতার সাথে আর্থিক ব্যবস্থপনার মাধ্যমে টাওয়ার হ্যামলেটস ফ্রন্টলাইন সার্ভিস হিসেবে খ্যাত গুরুত্বপূর্ণ সেবাখাতগুলো অব্যাহত রাখছে। বারার লাইব্রেরী ও আইডিয়া স্টোরে নতুন বইয়ের বিশেষ করে স্বাস্থ্য ও সুস্বাস্থ্য থাকা সম্পর্কিত বইপত্রের যোগান নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত ৮০ হাজার পাউন্ড বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে। স্থানীয় কমিউনিটির স্বাস্থ্য ও ভালো থাকার বিষয়ে গণ পাঠাগারও যাতে ভূমিকা রাখতে পারে, সেজন্য সোসাইটি অব চীফ লাইব্রেরীয়ানের সাম্প্রতিক প্রস্তাবণার আলোকে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।
কাউন্সিল বর্তমানে বেথনাল গ্রীণ লাইব্রেরীর উন্নয়নে ৬ লাখ পাউন্ড খরচ করে ঐতিহাসিক এই বিল্ডিংটিকে তার আগের জৌলুসে ফিরিয়ে আনছে। গত মাসে অনুষ্ঠিত পূর্ণাঙ্গ কাউন্সিল মিটিংয়ে কাউন্সিলররা মেয়রের প্রস্তাবিত বাজেটটি অনুমোদন করেন।
হোয়াইটচ্যাপল আইডিয়া স্টোর পরিদর্শনকালে মেয়র জন বিগস বলেন, আমাদের আইডিয়া স্টোর ও লাইব্রেরীগুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেবা দিয়ে যাচ্ছে। অর্থনৈতিক চাপ থাকা সত্বেও এই সার্ভিসে অতিরিক্ত বিনিয়োগ করতে পেরে আমি আনন্দিত। আমাদের বাসিন্দাদের কাছে যে সার্ভিস বা সেবাখাতগুলো সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ, তা অব্যাহত রাখার ব্যাপারে আমি বদ্ধপরিকর।
কেবিনেট মেম্বার ফর রিসোর্সেস কাউন্সিলর ডেভিড এডগার বলেন, বই পড়া সত্যিকার অর্থেই জীবনে পরিবর্তন ও পূণর্গঠন করতে পারে। স্বাস্থ্য ও ভালো থাকা সম্পর্কিত বইপত্রের সংগ্রহ গড়ে তুলতে আমাদের এই বিনিয়োগ স্বাস্থ্যকর টাওয়ার হ্যামলেটস বিনির্মানে সাহায্য করবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close