উচ্চশিক্ষায় স্কলারশিপ, বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য সুবর্ণসুযোগ

চীন, জাপান, কোরিয়া সহ এশিয়ার যেকোনো দেশে ফ্রি পড়ালেখা করার সুযোগ করে দিচ্ছে জাপান সরকার। মূলত উন্নয়নশীল দেশের জন্য এমন স্কলারশিপের ব্যবস্থা করেছে দেশটি। এই স্কলারশিপের আওতায় ১বছর মেয়াদী মাস্টার্স কোর্সে ফ্রি, এমনকি থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার। সাথে পাবেন চিকিৎসা ও ভ্রমনের জন্য অর্থও। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য এটি একটি সুবর্ণসুযোগ। জাপান স্কলারশিপ প্রোগ্রাম(জেএসপি) ও এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক যৌথভাবে এ স্কলাশিপ প্রদান করছে। প্রতিবছর এডিবি প্রায় ৩শ ছাত্র-ছাত্রীকে উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য এমন স্কলাশিপ দিয়ে থাকে। ইতোমধ্যে এর জন্য আবেদন সংগ্রাহের আহ্বানও করা হয়েছে। ২০১৬ সালের জন্য মূলত ৩শ শিক্ষার্থীকে এ স্কলারশিপ প্রদান করা হবে। এ সুযোগ পেতে হলে আবেদন করতে হবে চলতি বছরের ২০জুলাইয়ের মধ্যে।
এই স্কলারশিপের অধীনে যেসব বিষয়ে অধ্যয়ন করা যাবে: ক. ইকনোমিকস, খ. ম্যানেজমেন্ট, গ. পাবলিক হেলথ, ঘ. এডুকেশন, ঙ. এগ্রিকালচার, চ. সায়েন্স এন্ড টেকনোলজী এবং উন্নয়ন সম্পর্কিত অন্যান্য বিষয়।
আবেদেনর যোগ্যতা: ১। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক থেকে ঋণ নেয় এমন দেশের নাগরিক হতে হবে। যেমন- বাংলাদেশ। ২। আগে ঋণ নিতো, বর্তমানে নেয় না; এমন দেশের নাগরিক হওয়া চলবে না। ৩। ব্যাচেলর অথবা সম্মানের ডিগ্রি থাকতে হবে। ৪। অনার্স সম্পন্ন হওয়ার পর কমপক্ষে দুই বছরের পেশাগত অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ৫। ইংরেজিতে মৌখিক ও লিখিত উভয় মাধ্যমে দক্ষ হতে হবে। ৬। আবেদন করার সময় ৩৫ বছরের বেশী বয়স হওয়া চলবে না। ৭। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হবে। ৮। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সাথে সম্পৃক্ত এমন কোন ব্যক্তি বা তার স্বজন আবেদন করতে পারবে না। ৯। আবেদনকারীকে অবশ্যই দেশের জন্মসূত্রে নাগরিক হতে হবে।
এই স্কলারশিপের অধীনে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ: ১। ইউনিভার্সিটি অব মেলবোর্ন ২। ইউনিভার্সিটি অব হংকং, চায়না ৩। অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ৪। ক্রফোর্ড স্কুল অব ইকোনমিক্স এন্ড গভর্নমেন্ট ৫। ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি, নয়াদিল্লী, ভারত ৬। হিতোসুবাসি ইউনিভার্সিটি ৭। স্কুল অব ইন্টারন্যাশনাল এন্ড পাবলিক পলিসি, টোকিও, জাপান ৮। ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব জাপান ৯। কোরে ইউনিভার্সিটি, জাপান ১০। কিউশু ইউনিভার্সিটি, জপান ১১। নাগোয়া ইউনিভার্সিটি, জাপান ১২। সুকুবা বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান ১৩। টোকিও ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি ১৪। ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুর ১৫। এশিয়ান ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজী,ব্যাংকক ১৬। দ্য ইউনিভার্সিটি অব টোকিও ১৭। ইউনিভার্সিটি অব অকল্যান্ড, নিউজিল্যানড ১৮। লাহোর ইউনিভার্সিটি অব ম্যানেজমেন্ট সায়েন্স ১৯। ইন্টারন্যাশনঅল রাইস রিসার্চ ইন্সটিটিউট, ফিলিপাইন।
সুযোগ-সুবিধা: ১। সকল প্রকারের টিউশন ফি সম্পূর্ণ ফ্রি ২। বসবাসের যাবতীয় খরচ ৩। সম্পূর্ণ ফ্রি মেডিকেল সুবিধা ৪। ভ্রমণ খরচ।
যেভাবে নির্বাচন করা হবে: ১। একাডেমিক ফলাফলকে গুরুত্ব দেয়া হবে ২। দুই বছরের কম অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রার্থীদেরকে নির্বাচিত করা হবে না। ৩। জাতীয়তার ভিন্নতা গ্রহণযোগ্য হবে না। ৪। মহিলা প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ৫। যারা ইতোমধ্যে বাইরের কোন দেশ থেকে বৃত্তি পেয়েছে, এমন শিক্ষার্থীরা অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।
আবেদন পদ্ধতি: শিক্ষার্থীকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এডিবির ওয়েবসাইট থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। ক্লিক করতে পারেন- https://www.auckland.ac.nz/en/for/international-students/is-scholarships-loans-and-funding/is-asian-development-bank-japan-scholarship.html উল্লেখ্য, জাপান সরকারের অর্থায়নে ১৯৮৮ সালে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক ও জাপান সরকার যৌথভাবে এ স্কলারশিপের প্রবর্তন করেছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button