সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী আর নেই

সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী আর নেই ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। আজ রোববার বাদ মাগরিব ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে বার্ধক্যজনিত রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। তিনি ১৯৩৭ সালের ১৮ জুন জন্মগ্রহণ করেন।

বিচারপতি মাহমুদুল আমিন ২০০১ সালের পহেলা মার্চ থেকে ২০০২ সালের ১৭ জুন পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি ছিলেন। তিনি ছিলেন দেশের ১১ তম প্রধান বিচারপতি। এর আগে তিনি ১৯৬২ সাল থেকে ১৯৮৭ সাল পর্যন্ত আইনজীবী হিসেবে নিম্ন ও উচ্চ আদালতে নিয়োজিত ছিলেন। পরে ১৯৮৭ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মৃত্যুর সময় তিনি দুই মেয়ে ও এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার পিতা আব্দুল গফুর চৌধুরী ছিলেন সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

মাহমুদুল আমিন চৌধুরীর সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হতে মেট্রিকুলেশন এবং এমসি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভের পর ঢাকা সিটি ল কলেজ হতে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। এবং ১৯৬৩ সালে আইনজীবি হিসেবে সিলেট জেলা বারে যোগ দেন।

এরপর ১৯৮৭ সালের জানুয়ারিতে হাইকোর্টের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন এবং ১৯৯৯ সালে আপীল বিভাগের বিচারপতি নিযুক্ত হন। তারপর হন দেশের প্রধান বিচারপতি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক: সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এমপি। তিনি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

এক শোক বার্তায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সিলেটের অধিবাসী সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী ছিলেন একজন ন্যায়পরায়ণ ব্যক্তি। ড. মোমেন উল্লেখ করেন, পারিবারিকভাবে মাহমুদুল আমিন চৌধুরী তাঁর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি ছিলেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close