এনএইচএস’র লোকবল বিপর্যয়: ১০ লাখ অপারেশন হুমকির মুখে

এনএইচএস-এ অ্যানেসথেটিস্টের অভাবে ৫ লক্ষাধিক রোগীর অপারেশন বিলম্বিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। দেখা গেছে, প্রত্যেক ১০টি হাসপাতালের মধ্যে ৯ টিতে কমপক্ষে একটি অ্যানেসথেসিস্টের পদ শূন্য রয়েছে। চলতি বছরের প্রথম দিকে করোনাভাইরাস মহামারি এনএইচএস-কে স্থবির করে দিলে, ১০ হাজারেরও বেশী এনএইচএস রোগী অপেক্ষার তালিকায় পড়ে যান, যারা ১ বছরেরও বেশী সময় যাবৎ চিকিৎসার অপেক্ষায় আছেন।
হেলথ্ ফাউন্ডেশন এই বলে সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছে যে, এনএইচএস সার্ভিসে করোনাভাইরাসের প্রতিক্রিয়ার দরুণ ৪৭ লাখ কম রোগী চিকিৎসার জন্য রেফার্ড হয়েছেন। রয়াল কলেজ অব অ্যানেসথেটিস্টস বলেছে, এই কাজে শূন্যপদের সংখ্যা আরো খারাপ হচ্ছে। তারা এটাকে ‘লোকবল বিপর্যয়’ বলে আখ্যায়িত করেছে। এজন্য রোগীদের জীবন দিতে হতে পারে এবং হাসপাতাল সেবায় এর মারাত্মক প্রভাব পড়তে পারে বলে আশঙ্কা ব্যক্ত করেছে।
সংস্থাটি জানায়, এনএইচএস-এ মোট ১৪১০টি অ্যানেসথেথিস্টের পদ শূন্য রয়েছে। প্রত্যেক অ্যানেসথেটিস্ট বছরে গড়ে ৭৫০ জন রোগীকে সেবা দান করেন। সেই হিসেবে ১০ লাখের বেশী অপারেশন ঝুঁকিতে পড়তে পারে। এনএইচএস ইউনিটসমূহের ৯৭ শতাংশ থেকে সংগৃহীত ফলাফলে দেখা গেছে, গোটা যুক্তরাজ্যে ৬৮০টি কনসালট্যান্ট অ্যানেসথেটিস্টের পদ শূণ্য।
চাহিদা বৃদ্ধির সাথে ৩৭৪ টি পদ পুরণের কথা থাকলেও এখনো অর্থ না পাওয়ায় তা করা সম্ভব হয়নি। কনসালট্যান্টদের পাশাপাশি কাজ করেন এমন নন- ট্রেনিং স্টাফ গ্রেড চিকিৎসকদের ১১৩টি আবশ্যকীয় পদও একই কারণে পূরণ হয়নি। জনবলে কনসালট্যান্টদের শূণ্যপদের পার্সেন্টেজ ২০১৫ সাল থেকে দ্বিগুণ হয়েছে এবং প্রতি ৮টি পদের মধ্যে আবশ্যকীয় একটি পদ এখনো পূরণে করা হয়নি।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close