করোনাভাইরাস প্রতিরোধ

স্কটল্যান্ড ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা, লংঘন করলে ৬০ পাউন্ড জরিমানা

শুক্রবার বিকেল ৬টা থেকে স্কটল্যান্ডের সীমান্ত পাড়ি দেয়া অবৈধ ঘোষনা করেছে দেশটি। কোন যুক্তিসংগত কারণ ছাড়া কেউ সীমান্ত অতিক্রম করলে তাকে ৬০ পাউন্ড জরিমানা দিতে হবে। নতুনভাবে আরোপিত করোনাভাইরাস জনিত নিষেধাজ্ঞার আওতায় এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। তবে সমালোচকরা এটাকে ত্রুটিপূর্ণ বলে আখ্যায়িত করেছেন। মধ্য স্কটল্যান্ডসহ লেভেল-থ্রি কিংবা লেভেল-ফোর লকডাউন এলাকাসমূহে বসবাসকারী লোকজনকে তাদের এলাকা ত্যাগ না করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
কিন্তু ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টার্জিওনকে লক্ষ্য করে দাবি করা হয়েছে যে, বিধিসমূহ স্কটল্যান্ডের পার্লামেন্ট কর্তৃক আইনানুগভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। এতে শংকা হচ্ছে, লকডাউন অমান্যকারী ভ্রমণকারীরা তাদের জরিমানা নিয়ে বিবাদ করতে পারে। নতুন বিধি নিষেধ শুরুর আগে বিপুল সংখ্যক লোক লেভেল-ফোর লকডাউন এলাকাগুলোতে প্রবেশের জন্য ভিড় করে, যখন তাদের পরিবারগুলো ক্রিসমাসের কেনাকাটা করার চেষ্টা করে। এ অবস্থায় নিকোলা সার্জিওন এই বলে নিশ্চিত করেছেন যে, তিনি ক্রিসমাসে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে এর ফলশ্রুতিতে জানুয়ারীতে আরো কঠোর বিধি নিষেধ আরোপের বিষয়টি বিবেচনা করছেন।
মন্ত্রীরা বলেন, জানুয়ারীর শেষে ১০ লাখ স্কটিশকে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দেয়ার প্রত্যাশা করছেন তারা। স্কটল্যান্ডে আরো ১০৮৯ জনের কভিড সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে। তবে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা ১২১২ থেকে ২৯-তে নেমে এসেছে। আর ইনটেনসিভ কেয়ারে রোগীর সংখ্যা ৮৫ থেকে ৩-তে নেমে গেছে। আরো ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে ভাইরাসে, গত ২৮ দিনে যাদের পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। ভ্রমণ সংক্রান্ত এই নিষেধাজ্ঞা ঘোষনার পরদিন থেকে কার্যকর হয়েছে। স্কটল্যান্ডের সাথে ইংল্যান্ড, ওয়েলস, উত্তর আয়ারল্যান্ড, রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ড, চ্যানেল আইল্যান্ড এবং আইলস অব ম্যান-এর মতো সাধারণ ভ্রমণ এলাকাগুলোর মধ্যে ভ্রমণ বন্ধে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।
স্কটল্যান্ডে প্রবেশের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ৪নং অনুচ্ছেদে উল্লেখিত সাধারণ ভ্রমণ এলাকায় বসবাসকারী কোন ব্যক্তি স্কটল্যান্ডে প্রবেশ বা অবস্থান করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close