ব্রিটিশ এয়ারওয়েজকে ১৮৩ মিলিয়ন পাউন্ড জরিমানা

এই জরিমানা তাদের এক বছরের মোট আয়ের দেড় শতাংশ

যুক্তরাজ্যভিত্তিক বিমান পরিবহন সংস্থা ব্রিটিশ এয়ারওয়েজকে রেকর্ড পরিমাণ ১৮৩ মিলিয়ন পাউন্ড (২৩০ মিলিয়ন ডলার) জরিমানা করা হয়েছে। বিমান সংস্থাটি এই জরিমানার কবলে পড়েছে কারণ তাদের ওয়েবসাইট ত্রুটির কারণে আনুমানিক ৫ লাখ কাস্টমারের ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন জেনারেল ডাটা প্রটেকশন রেগুলেশন নামের এই আইনটি প্রণয়ন করে। আর আইনটি কার্যকর হয় গত বছর থেকে। বিদ্যমান আইন প্রণীত হওয়ার পর এ পর্যন্ত যত জরিমানা করা হয়েছে তার মধ্যে এটিই সর্বোচ্চ।

যুক্তরাজ্যের তথ্য কমিশনারের কার্যালয় জানিয়েছে, ইউজার ট্রাফিকের মাধ্যমে কাস্টমারদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়ার এই খবর পাওয়া যায় চলতি সপ্তাহে। একটি প্রতারক পেজ যা শুরু করে গত বছরের জুন থেকে। তবে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের এই জরিমানা কমানোর আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

তথ্য কমিশনারের কার্যালয় জানিয়েছে, হামলাকারীরা কাস্টমারদের নানারকম ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে, লগ ইন ইনফরমেশন, পেমেন্ট কার্ড এবং ট্রাভেল বুকিংয়ে বিস্তারিত তথ্য তারা জানতে পেরেছে। তবে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে বিষয়টি জানতে পারে।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজকে যে ১৮৩ মিলিয়ন পাউন্ড জরিমানা করা হয়েছে তা তাদের এক বছরের মোট আয়ের দেড় শতাংশ। বিমান সংস্থাটির মালিক কর্তৃপক্ষ আইএজি জানিয়েছে, তারা এমন জরিমানার বিরুদ্ধে তাদের তথ্য তুলে ধরে তারা তা প্রতিহত করার চেষ্টা করবে।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও), অ্যালেক্স ক্রুজ বলেন, ‘প্রাথমিক তথ্যাদি পেয়ে আমরা বিস্মিত এবং হতাশ। যদি কেউ কাস্টমারের তথ্য হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে তাহলে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ দ্রুত তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়। আমরা প্রতারণার কোনো প্রমাণ পাইনি।’

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close