সংলাপে বসতে দুই নেত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের চিঠি

USAবাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনের জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র ফরেন রিলেশন্স সিনেট কমিটির চেয়ারম্যান সিনেটর রবার্ট মেনেন্ডেজ। বুধবার পৃথকভাবে দুই নেত্রীর কাছে চিঠি দুটি পাঠানো হয়েছে বলে যুক্তরাষ্ট্র ফরেন রিলেশন্স সিনেটে কমিটির ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে।
চিঠিতে সিনেটর মেনেন্ডেজ লিখেছেন, বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক অবস্থার আপনাদের বিরোধী পক্ষের সঙ্গে যৌথভাবে সমাধান করতে না পারায় আমার উদ্বেগের কথা জানিয়ে চিঠি লিখছি। চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা দেশকে অস্থিরতার দিকে নিয়ে যেতে পারে। এতে করে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। বাংলাদেশের জনগণ একটি স্থিতিশীল, স্বচ্ছ এবং গ্রহণযোগ্য রাজনৈতিক প্রক্রিয়া আকাঙক্ষা করেন যার মধ্য দিয়ে তারা পরবর্তী নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন।
এ অচলাবস্থা কাটাতে চিঠিতে সিনেটর নতুন নির্বাচন নিয়ে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়ে লিখেছেন, অবনতিশীল অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমি আহ্বান জানাচ্ছি একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নতুন নির্বাচনের জন্য সংলাপ শুরু করার জন্য।
সারা বিশ্ব বাংলাদেশকে পর্যবেক্ষণ করেছে উল্লেখ করে সিনেটর লিখেছেন, আমাদের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কের একজন গুরুত্বপূর্ণ সমর্থক হিসেবে আমি আবারো আহ্বান জানচ্ছি রাজনৈতিক সহিংসতা বন্ধে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের লক্ষ্যে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য।
চিঠিতে সিনেটর মেনেন্ডেজ লিখেছেন, নির্বাচনের দিন ও নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। যে কোনো পরিস্থিতিতে সহিংসতা রাজনৈতিক মতপ্রকাশের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্য নয়। রাজপথের সহিংসতা অবিলম্বে থামানো দরকার এবং রাজনৈতিক দলগুলোকে শান্তিপূর্ণভাবে তাদের মতপ্রকাশ করার পরিস্থিতি তৈরি করতে হবে।
বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার উল্লেখ করে সিনেটর লিখেছেন, দ্বি-পক্ষীয় বাণিজ্য বর্তমানে সর্বাধিক বার্ষিক ৬ বিলিয়ন ডলার। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করছে। চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা গুরুত্ব অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে গুরুতর প্রভাব ফেলবে। যা আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের আত্মবিশ্বাসকে দুর্বল করে দিতে পারে।
বর্তমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় দুই দেশের বিভিন্ন অর্জন হুমকির মুখে পড়ছে উল্লেখ করে সিনেটর বলেন, চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা ও সহিংসতা উভয় দেশের সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা, পাইরেসি বিরোধী, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা, দারিদ্র দূরীকরণ এবং খাদ্য নিরাপত্তাকে হুমকির বিরুদ্ধে অর্জিত সাফল্যকে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে।
শ্রমমান উন্নয়নের জন্য উভয় দলকে প্রকাশ্যে প্রতিশ্রুতি দেয়ার জন্য সিনেটর আহ্বান জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close