হাউজ অব কমন্সে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

ব্রেক্সিট চুক্তির ৯৫ ভাগ সম্পন্ন

আয়ারল্যান্ড সীমান্ত নিয়ে এখনো দর কষাকষি চলছে

ইউরোপ থেকে ব্রিটেনের বিচ্ছেদ চুক্তি ব্রেক্সিটের ৯৫ ভাগ শর্তে দুই পক্ষ একমত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। গতকাল হাউজ অব কমন্সে দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা জানান। তবে আয়ারল্যান্ড সীমান্ত নিয়ে এখনো উভয়পক্ষের মধ্যে দর কষাকষি চলছে। এই ইস্যুতে স্থবিরতা কাটানোর জন্য ব্রিটেন সম্ভাব্য সকল বিকল্পই বিবেচনা করছে বলে মন্তব্য করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গতকাল হাউজ অব কমন্সে ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ার অগ্রগতি নিয়ে ভাষণ দেন তেরেসা মে। এসময় তিনি বলেন, চুক্তির ৯৫ শতাংশ বিষয়ে একমত হলেও আয়ারল্যান্ড সীমান্ত নিয়ে এখনো সঙ্কট রয়েছে। এক্ষেত্রে আরো ছাড় দেয়ার জন্য তিনি ইইউ’র প্রতি আহবান জানান। আয়ারল্যান্ড ও উত্তর আয়ারল্যান্ডের মধ্যে কঠোর সীমান্ত এড়ানোর জন্য ইইউকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলেন।

প্রধানমন্ত্রী মে বৃটেনের অখন্ডতার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন,উত্তর আয়াল্যান্ড ও ব্রিটেনের বাকী অংশের মধ্যে কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হলে ব্রিটেনের অখন্ডতা হুমকির মুখে পড়বে। তিনি এমন পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য সম্ভাব্য সকল বিষয় বিবেচনায় রেখেছেন।

তবে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের ব্রেক্সিট সমন্বয়ক গাই ভেরহফস্তাত বলেন, ৯৫ শতাংশ না, চুক্তির ৯০ শতাংশ বিষয়ে উভয়পক্ষ একমত হয়েছে। আয়ারল্যান্ড সীমান্ত এখনো ব্রেক্সিট চুক্তির বড় বাধা। তবে ডিসেম্বরের ইইউ সামিটের আগেই উভয় পক্ষ একটি চুক্তিতে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

বর্তমানে ইইউ থেকে চুড়ান্তভাবে বেরিয়ে যাওয়ার জন্য ব্রিটেনের হাতে ২০২০ সাল পর্যন্ত সময় হাতে রয়েছে। তবে দ্রুতই চুক্তি না হলে ব্রিটেনকে কোন রকমের সমঝোতা ছাড়াই ইইউ ছাড়তে হবে। এক্ষেত্রে অন্তবর্তীকালীন সময় বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা চলছে। ধারণা করা হচ্ছে, ইইউ’র সঙ্গে সব ধরণের সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য বৃটেনকে ২০২২ সাল পর্যন্ত সময় দেয়া হতে পারে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close