যুক্তরাজ্যে বাড়ির মূল্য এপ্রিলে স্থিতিশীল ছিলো

বন্ধকদাতা প্রতিষ্ঠান হ্যালিফ্যাক্স অনুসারে, যুক্তরাজ্যে বাড়ির মূল্য গত মার্চের পতনের পর গত এপ্রিলে একটি স্থিতিশলি অবস্থায় ছিলো। মর্গেজের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ফার্স্টটাইম বায়ার অর্থ্যাৎ প্রথমবারের মতো ক্রেতারা ক্ষুদ্রতর বাড়িঘরের প্রতি ঝুঁকে পড়ায় এমনটি হয়েছে।
গত মাসে একটি টিপিক্যাল বাড়ির দাম মোটামুটি ২০০ পাউন্ড বেড়ে ২ লাখ ৮৮ হাজার ৯৪৯ পাউন্ডে উন্নীত হয়। এটা মার্চের তুলনায় ০.৯ শতাংশ কম, গত ৬ মাসের মধ্যে প্রথম হ্রাস। হ্যালিফ্যাক্স-এর মর্গেজ চীফ অ্যামান্ডা ব্রাইডেন বলেন, বাস্তবতা হচ্ছে এই যে, বাড়িঘরের দাম ২০২৪ সালের প্রথমদিকে ব্যাপকভাবে একটি সমতল বা স্থির অবস্থানে ছিল। এতে প্রতীয়মান হয় যে, হাউজিং মার্কেট উচ্চ সুদ হারের যুগে পা রেখেছে। যখন কয়েক বছর আগের চেয়ে ঋনগ্রহনের খরচ অধিকতর ব্যয়বহুল ছিলো, বাড়িঘরের ক্রেতারা একটি অপেক্ষাকৃত স্থিতিশীল মেয়াদ থেকে আস্থা অর্জন করে।
তিনি আরো বলেন, ক্রেতারা তাদের প্রত্যাশাসমূহকে সংগতিপূর্ন করে এবং বিশেষভাবে ফার্স্ট টাইম বায়াররা অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র সম্পত্তিকে টার্গেট করে ঋনের উচ্চমূল্যের ক্ষতিপূরন করেন। এটা চলতি বছরের প্রথম কয়েক মাসে সম্পত্তির মূল্যে প্রতিফলিত হয়, যেখানে ফ্ল্যাটসমূহের মূল্যমান অত্যন্ত দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং বৃহত্তর সম্পত্তির সাথে গত ৪ বছর ধরে বিদ্যমান ‘প্রবৃদ্ধির ফারাক’ কমিয়ে আনে।
ব্রাইডেন আরো বলেন, কর্মকান্ড ও চাহিদা বৃদ্ধি অব্যাহত ছিলো এবং মর্গেজ অনুমোদন সমূহ ১৮ মাসে তাদের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিলো। তবে অ্যাফোর্ড্যাবিলিটি অর্থ্যাৎ আয়াসসাধ্যতা একটি সমস্যা হিসেবে থেকে গিয়েছিলো ক্রেতাদের জন্য এবং ঐগুলো ফিক্সড-টার্ম মর্গেজ চুক্তি থেকে ঘুর্নায়মান ছিলো।
অর্থনৈতিক ডাটা প্রোভাইডার মানিফ্যাক্টস অনুসারে, যখন গড় পাঁচ বছর মেয়াদী মর্গেজের হার ৫.৫ শতাংশ তখন গড় ২ বছর মেয়াদী আবাসিক মর্গেজ রেইট হচ্ছে ৫.৯৩ শতাংশ। অথচ ২ মাস আগে ২ বছর মেয়াদী বন্ধকের হার ছিলো ৫.৭৮ শতাংশ এবং ৫ বছর মেয়াদী বন্ধকের হার ছিলো ৫.৩৪ শতাংশ।
তিনি বলেন, যদিও এখনো তা প্রত্যাশিত, ব্যাংক রেইট যদি চলতি বছরের শেষদিকে নেমে আসে, ফিক্সড মর্গেজ রেইট অবশ্যই হ্রাস পাবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button