এই পরিস্থিতিকে সম্পূর্ন নৈরাজ্যকর বলে আখ্যায়িত

যুক্তরাজ্যে ১ লাখ ৭৫ হাজারেরও বেশী আশ্রয় প্রার্থী সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়

ব্রিটিশ হোম অফিসের এক নতুন পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রেকর্ড সংখ্যক ১ লাখ ৭৫ হাজারেরও বেশী আশ্রয় প্রার্থী তাদের আবেদনের ব্যাপারে প্রাথমিক সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন। লেবার পার্টি এই পরিস্থিতিকে সম্পূর্ন নৈরাজ্যকর বলে আখ্যায়িত করেছে। চ্যারিটিসমূহ বলেছে, আশ্রয়প্রার্থীদের জটসৃষ্টির দরুন বিপুল মানবিক মূল্য চুকাতে হচ্ছে। রিফিউজী কাউন্সিল বলেছে, বিলম্বেও বিপর্যয়কর প্রভাব পড়ছে ঐসব লোকের ওপর যাদের সাথে আমরা কাজ করছি, ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে ঐসব লোকের ওপর যাদের জীবন স্থবির হয়ে আছে অনিশ্চয়তার মধ্যে, যারা উৎকন্ঠিতভাবে অপেক্ষা করছে যুক্তরাজ্যে তারা আদৌ থাকতে পারবে কি-না, তা জানার জন্য।
গত জুন মাস পর্যন্ত এক বছরের আশ্রয় সংক্রান্ত মামলার ডাটা থেকে প্রতীয়মান হয় যে, যখন সিদ্ধান্ত প্রদানের সংখ্যা বৃদ্ধি পায় আগের বছরের তুলনায়, আবেদপত্রের বড়ো ধরনের বৃদ্ধির দ্বারা তার চেয়ে বেশী বাতিল হয়। প্রায় ১০ হাজার আফগান বছরব্যাপী আশ্রয়ের জন্য আবেদন করেন। যুক্তরাজ্যে প্রবেশের পর আশ্রয় প্রার্থীদের মধ্যে তারা দ্বিতীয় বৃহত্তম জাতি, আলবেনীয়দের পরেই যাদের স্থান।
পরিসংখ্যানে আরো দেখা গেছে, ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত বছরব্যাপী আশ্রয় আবেদনের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৮ হাজার ৭৬৮। যাদের সাথে সংশ্লিষ্ট ৯৭ হাজার ৩৯০ জন লোক। এর আগের ১২ মাসের তুলনায় তা ৬৬ হাজার ৩৮৪ টি বেশী আবেদন। এই বৃদ্ধি একটি প্রাথমিক সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষমানদের সংখ্যা ১ লাখ ৭৫ হাজার ৪৫৭ জনে উন্নীত করে, যা ২০২২ সালের জুনের শেষ পর্যন্ত মোট আবেদনের চেয়ে ১ লাখ ২২ হাজার ২১৩ বেশী এবং ২০১০ সালে রেকর্ড শুরুর পর থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যা।
একটি সিদ্ধান্তের জন্য ৬ মাসের বেশী সময় পর্যন্ত অপেক্ষমান লোকের সংখ্যা ৫৭ শতাংশ বৃদ্ধি পায়, যা এক বছর আগের জুন পর্যন্ত ৮৯ হাজার ২৩১ থেকে ১ লাখ ৩৯ হাজার ৯৬১ জন বৃদ্ধি। হোম অফিসের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০২৩ সালে ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ক্ষুদ্র নৌকায় যুক্তরাজ্যে ১৯ হাজার ১৭৪ জন আগমন করে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button